নারী অধিকার প্রতিষ্ঠায় ইসলাম।

বিশ্ব ভুবন যখন জাহেলী আঁধারে আচ্ছন্ন, অশান্ত ধরনীর চারিদিকে হাহাকার, আর এ হাহাকার বাতিল শয়তানিয়্যাতের দুর্দান্ত দাপটে পৃথিবী মুহ্যমান, ভয়ংকর নারী জাতির অবস্থান। অথচ মহান সৃষ্টিকর্তার রহস্যময় সৃষ্টি দ্বারা সুসজ্জিত এ নিখিল বসুন্ধরা। এ ধরাকে আল্লাহ তায়ালা সুশোভিত করেছেন সৃষ্টি দ্বারা, আর মানুষকে সর্বোত্তম জাতি হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন। মানব জাতিকে নর-নারী দুই শ্রেণীতে বিভক্ত করেছেন।  এ বিভক্তি সত্ত্বেও নৈতিকতার দিক থেকে উভয়ের মাঝে কোনো বিভেদ নেই।
 আল্লাহ পাক কুরআন এর মধ্যে বলেন,
তারা তোমাদের পোশাক্স্বরুপ, আর তোমরা তাদের পোশাক স্বরূপ।
অতএব, এখন থেকে আমরা বুঝতে পারি।
সম্মান ও মর্যাদার দিক থেকে নারী ও পুরষের মধ্যে মানুষ হিসেবে কোন বিভেদ নেই।
কিন্তু অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় হচ্ছে, যে ইসলাম নারীকে সম্মান - মর্যাদা, স্বাধীনতা ও অধিকারের সুউচ্চ আসনে স্থান দিয়েছে, অধুনা বিশ্বের নারীরা সেই ইসলামকেই নিজেদের অধিকার আদায়ের অন্তরায় মনে করছে।
ইসলামের বিধি নিষেধের প্রতি বৃদ্বাগুলি দেখিয়ে রাস্তায় নেমেছে বিভিন্ন অধিকার আদায়ের আন্দোলনের তারা আজ বল্গাহীন ঘোরার মত যেখানে সেখানে নিজের খেয়াল খুশি মতো ঘুরে বেড়াচ্ছে। লাজ লজ্জার মাথায় পদাঘাত করে তারা বের হয়ে এসেছে রাস্তা, ঘাটে, হোটেল রেস্তোরাঁ আর হাটে বাজারে স্বামীর চোখে ধুলো দিয়ে ধর্মের বিধান লংঘন করে পিতা মাতার স্নেহ মায়া পরিত্যাগ করে বখাটে যুবকের হাতে হাত রেখে অবাধে চলাফেরা করে যাচ্ছে।
এটাই কি নারী স্বাধীনতা?
অন্ধকার যুগে যে নারীকে ঘৃণাভরে জীবিত কবরস্ত করা হত,সে নারীকে ইসলাম শুধু বাচার অধিকার দিয়েই ক্লান্ত হয়নি। বরং করেছে তাকে মানব জাতির শ্রেষ্ঠত্বের আসনে অধিষ্ঠিত। করেছে অতুলনীয় ভুষনে ভূষিত। নারী জন্মের সুচনা লগ্ন হতে তার জীবন যবনিকা পর্যন্ত প্রতিটি পর্বেই ইসলাম তাকে অধিকার দিয়েছে।
 প্রিয় পাঠকেরা,
উল্লিখিত আলোচনা দ্বারা কুরআন - হাদিসের আলোকে এ কথা স্পষ্টরূপে প্রতীয়মান হয়ে উঠে যে, ইসলাম নারীর সঠিক ও ন্যায়সঙ্গত অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছি। তার সার্বিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় কোন বিকল্প নেই।
কিন্তু তথাকথিত প্রগতিশীল নারীরা ইসলামের এই অসাধারণ নারী মূল্যায়নকে তুচ্ছ মনে করেন। তাই আসুন গন্তব্যহীন ধ্বংসের দিকে চলমান এই নারী সমাজকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য ঐক্যবদ্বভাবে এগিয়ে আসি।
তাদের সঠিক বুঝ দান করার চেষ্টা করি।
আল্লাহ আমাদের সহায় হোন।
আমিন।

0 Comments